| |

Ad

তারাকান্দা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে মাদ্রাসায় নিয়োগ বাধাগ্রস্ত করার অভিযোগ

আপডেটঃ ১২:৫৬ অপরাহ্ণ | জুলাই ০৫, ২০২০

স্টাফ রি‌পোর্টার : ময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলাধীন চরপাড়া দাখিল মাদ্রাসার নিরাপত্তাকর্মী ও আয়া নিয়োগ কার্যক্রম তারাকান্দা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবু বক্কর সিদ্দিক কর্তৃক বাধাগ্রস্ত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ জামাল উদ্দিন  ও মাদ্রাসার সুপার মোঃ শামসুল হক, গত ০৪/০৭/২০২০ ইং তারিখ  শিক্ষা মন্ত্রী  ও গৃহায়ন-গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী বরাবর, এক অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের অনুলিপি শিক্ষা সচিব শিক্ষা মন্ত্রনালয়, মহা পরিচালক মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, মহা পরিচালক মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর, বিভাগীয় কমিশনার ময়মনসিংহ, জেলা প্রশাসক ময়মনসিংহ, উপ-পরিচালক মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা ময়মনসিংহ অঞ্চল, ময়মনসিংহ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তারাকান্দা, ময়মনসিংহকে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপি, বরাবরেও এ বিষয়ে পৃথকভাবে আরো একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়েছে, ময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলাধীন চরপাড়া দাখিল মাদ্রাসার নিরাপত্তাকর্মী ও আয়া নিয়োগ কার্যক্রম যথাযথ নিয়ম অনুযায়ী স্বাভাবিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে গত ০৩/০৭/২০২০ ইং তারিখ নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠানের জন্য ব্যবস্থা গৃহীত হয়। ৫ সদস্যদের নিয়োগ কমিটির মধ্যে তারাকান্দা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক একজন সম্মানিত সদস্য। নিয়োগ পরীক্ষার দিন কমিটির অন্যতম সদস্য মাদ্রাসার শিক্ষা অধিদপ্তরের প্রতিনিধি সহকারী পরিচালক জান্নাতুন নাহার ঢাকা থেকে যথারীতি নিয়োগ বোর্ডে উপস্থিত হন। তারাকান্দা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক কোন কারণ ছাড়াই নিয়োগ বোর্ডে উপস্থিত হন নাই। এমনকি তিনি নিয়োগ কমিটির কোন কর্মকর্তাকেও  বিষয়টি অবহিত করেননি। উপস্থিত নিয়োগ কমিটির সম্মানিত ৪ সদস্য বিকাল ৪ টায় নিয়োগ সংক্রান্তে একটি সভা করে যথারীতি রেজুলেশন আনেন। রেজুলেশনে নির্বাচন কার্যক্রম স্থগিত করে পরবর্তী সময়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সুপারিশ করা হয়। উল্লেখ্য উভয় পদে নিয়োগ প্রাপ্তির জন্য আবেদনকারী সকল প্রার্থীগণ সকাল ১০ টায় উপস্থিত হয়ে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে নিয়োগ বোর্ডের সামনে উপস্থিত ছিল। একজন নিয়োগ কমিটির সম্মানিত সদস্য হয়ে ও দায়িত্বশীল কর্মকর্তা হওয়া সত্ত্বেও তার অনুপস্থিতি এক বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করে। তার জন্য প্রতিষ্ঠানটির নিয়োগ কার্যক্রম ব্যাহত হয়। ইচ্ছাকৃত ভাবে নিয়োগ কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য নিয়োগ বোর্ডের যথাযথ স্থানে উপস্থিত হননি। তার কোন দুরভিসন্ধি ও অসৎ উদ্দেশ্য রয়েছে। উল্লেখিত নিরাপত্তাকর্মী ও আয়া নিয়োগ ক্ষেত্রে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ইচ্ছাকৃত ভাবে যে সমস্যার সৃষ্টি করেছেন সে জন্য তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে আইন সম্মত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অনুরোধ করা হয়। এ ব্যাপারে তারাকান্দা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবু বক্কর সিদ্দিককে জিজ্ঞাসা করলে এর সঠিক কোন উত্তর না দিয়ে ঘুরিয়ে পেচিয়ে নানা কথা টেনে এনে বলেন আজকে দুটি মাদ্রাসায় নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠানের তারিখ ছিল আমি বিশেষ কারণে যেতে পারি নাই। অভিযোগকারী মাদ্রাসার সভাপতি ও সুপারকে জিজ্ঞাসা করলে তারা বলেন সারাদিন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের জন্য মাদ্রাসায় অপেক্ষা করি কিন্তু তিনি দায়িত্বশীল হয়েও আসছি আসছি বলেও রহস্যজনক কারণে আসেননি।