| |

Ad

শুধু স্কুলের বই পড়ে জিপিএ-৫ পেলে চলবেনা আউট বইও পড়তে হবে : ড. জাফর ইকবাল

আপডেটঃ 2:27 pm | November 11, 2019

সাইফুল আলম,কেন্দুয়া প্রতিনিধি : নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে প্রয়াত নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ প্রতিষ্ঠিত শহীদ স্মৃতি বিদ্যাপীঠের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে দেশবরেণ্য শিক্ষাবিদ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেছেন শুধু স্কুলের বই পড়ে জিপিএ-৫ পেলে তাকে দিয়ে পৃথিবীর কিছু হবে না। তাই পাঠ্যবই পড়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের আরো অনেক কিছুই শিখতে হবে।

তাদেরকে বেশি বেশি আউটবই পড়তে হবে। ছবি আঁকতে হবে। গান লিখতে হবে। এ সময় হুমায়ূন আহমেদের উদাহরণ টেনে তিনি আরো বলেন, হুমায়ূন আহমেদ খুব ছোটবেলা থেকেই বইপড়া শুরু করেন।

যে কারণে তিনি একজন ভালো ছাত্র হতে পেরেছিলেন। তিনি শুধু একজন মেধাবী ছাত্রই ছিলেন না। তিনি একজন জাদুকরী লেখক ছিলেন। উপন্যাস-নাটক লিখেছেন। গান লিখেছেন।

কবিতা লিখেছেন। তিনি খুব সুন্দর ছবিও আঁকতে পারতেন। একজন ভালো ছাত্রকে সবকিছুই পারতে হয়। সোমবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে শহীদ স্মৃতি বিদ্যাপীঠ প্রাঙ্গণে হুমায়ূন আহমেদের ৭১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল এসব কথা বলেন। সভায় শহীদ স্মৃতি বিদ্যাপীঠের পরিচালনা কমিটির সভাপতি হুমায়ূনপত্মি মেহের আফরোজ শাওনের সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসাবে বক্তব্য রাখেন, নেত্রকোনা-৩ আসনের এমপি অসীম কুমার উকিল।

শহীদ স্মৃতি বিদ্যাপীঠের সহকারি প্রধান শিক্ষক শরীফ আনিস আহমেদের পরিচালনায় এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মেহের আফরোজ শাওনের পিতা ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আলী, হুমায়ূন আহমেদের বোন সুফিয়া হায়দার, অন্য প্রকাশের স্বত্ত্বাধিকারী মাজহারুল ইসলামের স্ত্রী তানজিলা রহমান, কেন্দুয়া পৌরসভার মেয়র আসাদুল হক ভূইয়া, কেন্দুয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এডভোকেট আব্দুল কাদির ভূইয়া প্রমুখ। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন এসআই টুটুল, সেলিম খান, বাউল সুনীল কর্মকার, দিল বাহার খান, প্রদীপ পন্ডিতসহ স্থানীয় শিল্পীরা।