| |

Ad

ময়মনসিংহ টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী সরকার সুস্থ ধারার সংস্কৃতি বিকাশ ও উন্নয়নে ব্যাপক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে

আপডেটঃ ১১:২৫ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, গুণীজনের কাছ থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। কেন না গুণীজন আমাদের সমাজের অহংকার। তাদের আদর্শ, চিন্তা ও চেতনা সমাজকে সুপথে পরিচালিত করতে দিক নির্দেশনা দেয়। তিনি আজ সকালে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে ময়মনসিংহ টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটির ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী -২০১৯ ও গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। সংগঠনের সভাপতি বাবুল হোসেন সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ব বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান, ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান ও ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব সাধারন সম্পাদক শেখ মহিউদ্দিন আহমেদ।
মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার সুস্থ ধারার সংস্কৃতি বিকাশ ও উন্নয়নে ব্যাপক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এ লক্ষে দেশের প্রতিটি উপজেলায় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গড়ে তোলার কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। এ প্রসংঙ্গে তিনি বলেন, ময়মনসিংহের রয়েছে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য। এই ঐতিহ্যকে ধরে রাখার জন্য সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় থেকে এখানে একটি সাংস্কৃতিক বলয় প্রতিষ্ঠার প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে এবং তা বাস্তবায়নের জন্য সকল প্রস্তুতিও এগিয়ে চলছে। একনেকের সভায় সেটি উপস্থাপনের প্রস্ততি নেয়া হয়েছে। এতে প্রায় ১শত কোটির বেশি টাকায় ব্যায় হবে।
দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করার লক্ষে দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে যে অভিযান চলছে তা অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান। তিনি আরো বলেন, শোডাউনের রাজনীতি থেকে আমাদের বের হয়ে আসতে হবে। কেননা জনগনের কল্যাণই রাজনীতি। রাজনীতিবিদদের স্বচ্ছ রাজনীতি করতে হবে।
অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত গুণীজন তাদের প্রতিক্রিয়ায় তাদেরকে সংবর্ধিত করায় ময়মনসিংহ টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটিকে ধন্যবাদ জানান।
গুণীজনদের সংবর্ধীত করার উদ্যোগ নেয়ার জন্য মন্ত্রী রিপোর্টার্স ইউনিটিকে ধন্যবাদ জানান। অনুষ্ঠানে যাদের সংবর্ধিত করা হয়েছে তারা হলেন সাংবাদিকতায় দৈনিক জাহান সম্পাদক অধ্যাপক রেবেকা ইয়াসমিন ও দৈনিক স্বদেশ সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক শ্রী জগদীশ চন্দ্র সরকার, স্বাস্থ্য সেবায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা: নাছির উদ্দিন আহমেদ, শিক্ষায় অধ্যাপক মোকাররম হোসায়েন, ক্রীড়ায় অধ্যাপক আমীর আহমেদ চ্যেধুরী রতন ও সাহিত্যে কবি ফরিদ আহমদ দুলাল। অনুষ্ঠানে ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিক ও গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান অতিথি কেক কেটে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর উদ্বোধন করেন। পরে প্রধান অতিথি সংবর্ধিত গুনীজনদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন। অনুষ্ঠান শেষে একটি বর্ন্যাঢ্য র‌্যালী শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।