| |

Ad

কেন্দুয়ার কান্দিউড়া ইউনিয়নে কর্মসৃজন প্রকল্প । স্ত্রী সংরক্ষিত নারী সদস্য স্বামী জসিমের নামে শ্রমিকের কার্ড

আপডেটঃ 11:02 am | September 18, 2019

 

সাইফুল আলম :- কেন্দুয়া উপজেলার কর্মসৃজন প্রকল্প নিয়ে বেশ আলোচনা সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। কোন প্রকল্পেই প্রকল্পের নিয়ম মানা হয়নি। চেয়ারম্যান ও প্রকল্প সভাপতিদের ইচ্ছে মাফিক প্রকল্প নিয়ে ইচ্ছে মাফিক কাজ করা হয়েছে। কাজের ক্ষেত্রে প্রথমত দরিদ্র লোক নিয়োগের কথা থাকলেও অধিকাংশ প্রকল্পেই এ বিষয়টি উপেক্ষা করা হয়েছে। প্রকল্প সভাপতিদের মনমত শ্রমিক দিয়ে প্রকল্পের তালিকা করা হয়েছে। এসব তালিকায় শ্রমিক হিসেবে প্রকল্প সভাপতিদের মায়ের নাম, চাচার নাম, চাচীর নাম এবং স্বামীর নাম দেওয়া হয়েছে। অথচ এসব শ্রমিকরা প্রকল্প এলাকায় কোন কাজ করেনি। কাজ না করেই টাকা উত্তোলন করে প্রকল্প সভাপতিরা আত্মসাত করে নিয়েছেন। অনুসন্ধানে জানা যায়, কান্দিউড়া ইউনিয়নের ১,২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য জোছনা আক্তার। তার স্বামী হারমোনি বাদক জসিম উদ্দিনের নামে শ্রমিকের কার্ড রয়েছে। অথচ শ্রমিক হিসেবে তাকে কেউ প্রকল্প এলাকায় কাজ করতে দেখেনি। এই ওয়ার্ডে ৬০ জন শ্রমিক নিয়ে একটি কর্মসৃজনের প্রকল্প গ্রহন করা হয়। এ প্রকল্পের সভাপতি ওই ওয়ার্ডের মহিলা সদস্য জোছনা আক্তার। তার স্বামীর নাম ছাড়াও তার আরো আত্মীয় স্বজনের নাম রয়েছে এ তালিকায়। প্রসঙ্গত, ওই ইউনিয়নের আরেকটি প্রকল্পের সভাপতি ইউপি সদস্য রোকনুজ্জামান। যার মা, চাচা ও চাচীর নামে শ্রমিকের কার্ড করেন। যা পত্রিকায় ইতোমধ্যে প্রকাশ হলেও এখনো প্রশাসন কোন ব্যবস্থা নেয়নি। অনিয়মের কাছে প্রশাসন অসহায় না প্রশাসনের কাছে অনিয়ম অসহায় এলাকায় এমন প্রশ্ন উঠেছে।