| |

Ad

ঈশ্বরগঞ্জের সহকারি কমিশনার (ভূমি) তানিয়া মুন

আপডেটঃ 1:41 pm | September 03, 2019

মতিউর রহমান মতি : ঈশ্বরগঞ্জের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানিয়া মুন যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব সাসেক্স বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘টেকসই উন্নয়ন’ বিষয়ে ‘প্রধানমন্ত্রী ফেলোশিপ-২০১৯’ নিয়ে মাস্টার্স করতে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গরতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারন করে মহান মুক্তিযোদ্ধের সরকার নিরলস ভাবে কাজ করছে। এরই অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এই স্কলারশিপের উদ্দোগ গ্রহন করেছে। তিনি একজন মুসলিম সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। এই নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যাট তানিয়া মুন ছাত্র জীবনে অত্যন্ত ভাল ও মেধাবী শিক্ষার্থী ছিলেন। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় এর গণসংযোগ ও সাংবাদিকতা বিষয়ে তকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেছে। বর্তমানে চাকুরীর পেশাতেও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়। ইতিপূর্বে তিনি স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ‘জার্নালিজম’ কমিউনিকেশন এবং ‘মিডিয়া স্ট্যাডিজ’ বিভাগে লেকচারার হিসেবে দু-বছর শিক্ষকতা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী “ফেলোশিপ” প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এর গর্ভমেন্টস ইনোভেশন ইউনিট হতে বৃত্তি প্রাপ্ত। এ বৃত্তি নিয়ে চলতি বছর ৭৩ জন শিক্ষাবিদ, বি.সি.এস কর্মকর্তা ও গবেশকগন উচ্চ শিক্ষা গ্রহন করতে দেশের বাহিরে যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানিয়া মুন একজন। তিনি ৩৪ তম বিসিএস কর্মকর্তা। সম্প্রতি সময়ে ভূমি অফিসে কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের পর পরই প্রতি নিয়ত সাধারণ লোকজনের সাথে কথাবার্তা বলেন এবং সাধ্যমত সমাধান করার চেষ্টা করেন। পবিত্র ঈদুল আযহার সময়ে শহর থেকে মানুষ যখন ঘর বাড়ি মুখি আসা যাওয়ায় ব্যস্থ, ঠিক সেই মুহুর্তে যাত্রীদের কাছ থেকে চালকরা যাতে বাড়তি ভাড়া আদায় না করে, সে জন্য ঈশ্বরগঞ্জ পৌর শহরে সিএনজি অটো ষ্ট্যান্ডে প্রচন্ড রৌদ্রে দাঁড়িয়ে তদারকি করতে দেখা যায়। সারা দেশের অংশ হিসেবে ময়মনসিংহ বিভাগ কে “নিষিদ্ধ পলিথিন’ মুক্ত করতে ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশানারের পদক্ষেপের ফলে ঈশ^রগঞ্জের ইউএনও উম্মে রুমানা তুয়ার দিক নির্দেশনার গত রবিবার উপজেলার বিভিন্ন দোকানে গিয়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যাট তানিয়া মুন হেন্ডবিল বিতরন করে। পলিথিনের ক্ষতিকারক দিক তুলে ধরেন। উল্লেখ্য যে তার পিতা ছিলেন ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযোদ্ধের অংশ গ্রহণকারি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মমিন উদ্দিন খাঁন। সেহেতু বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে তার দেশ প্রেম ভালবাসা থাকাই স্বাভাবিক। এ ব্যাপারে স্থানীয় লোকজন প্রতিনিধিকে বলেন সত্যি তিনি একজন দক্ষ কর্মকর্তা। তিনি অতি অল্প সময়ের মধ্যে উপজেলার ভূমি অফিসের মান উন্নয়নের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। সাধারণ মানুষের সাথে খোলামেলা কথা বলেন, যার যার সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা ও করেন। এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যাট তানিয়া মুন প্রতিনিধিকে বলেন দেশের উন্নয়নের লক্ষে কাজ করে যাব। সকলের সহযোগিতা কামনা করছি