| |

Ad

অবশেষে ধর্ষিত কলেজছাত্রীর মৃত্যু, ধর্ষক গ্রেপ্তার

আপডেটঃ 7:54 am | August 29, 2019

রফিক বিশ্বাস, তারাকান্দা (ময়মনসিংহ) থেকে ॥ ধর্ষনের শিকার কলেজছাত্রী ৫দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে না ফেরার দেশে চলে গেলেন।
জানা গেছে, গত ২১ আগস্ট সকাল ৯ টায় নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলা খামারহাটি (কোনাপাড়া) গ্রামের খোরশেদ আলীর কন্যা, নেত্রকোনা আবু আব্বাস ডিগ্রী কলেজের øাতক ৩য় বর্ষের ছাত্রী ইয়াসমিন আক্তার (২২) বই কিনতে শ্যামগঞ্জ বাজারে আসে।

ওই ছাত্রী উপজেলার জলশুকা কুমুদগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় গেটের সামনে আসা মাত্রই দূসম্পর্কের আত্মীয় নেত্রকোনা সদর উপজেলার শ্রীপুরবালি গ্রামের মৃত আবুল হাসেমের লম্পট পুত্র মোঃ আলমগীর হোসেন (২৪) ২/৩ জনের সহায়তায় বিয়ের প্রলোভনে ফুসলিয়ে মটর সাইকেল যোগে অপহরণ করে ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার কলেজ রোড এক ভাড়া বাসায় নিয়ে আসে। পরে একাধিকবার জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে বিকালে ধর্ষণকারী মোঃ আলমগীর হোসেন ওই ছাত্রীকে শ্যামগঞ্জ রেল গেইট এলাকায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে ওই ছাত্রীর মা নাসিমা আক্তার ও মামা আবুল কালাম আজাদ ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে নেত্রকোনা হাসপাতালে ভর্তি করলে বিস্তারিত ঘটনার বলার পর ওই ছাত্রী জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। তারপর উন্নত চিকিৎসার জন্য ধর্ষিতা ওই ছাত্রীকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ২ দিন লাইফ সার্পোটে রাখা হয়। গত ২৫ আগস্ট রবিবার সকাল সাড়ে ৮ টায় ওই ছাত্রী মারা যান।

এই ব্যাপারে ওই ছাত্রীর মা নাসিমা আক্তার বাদী হয়ে পূর্বধলা থানায় মামলা দায়ের করে। পুলিশ কলেজ ছাত্রী অপহরণ ও ধর্ষণকারী মুলহোতা আলমগীর হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। গত মঙ্গলবার নেত্রকোনা জেলার পুলিশ সুপার মোঃ আকবর আলী মুনসী ঘটনাস্থল তারাকান্দা উপজেলার কলেজ রোড ওই বাড়ী পরিদর্শন করেন।

এসময় পূর্বধলা থানার ওসি মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান, তারাকান্দা থানার ওসি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আকন্দ, পূর্বধলা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক উপস্থিত ছিলেন।