| |

Ad

বিদ্যমান কর ও মুসক বিষয়ক ময়মনসিংহ বিভাগীয় সংলাপে নাজিমউদ্দিন আহমেদ এমপি – সততার মাধ্যমে দেশকে উন্নত করার মানবিক গুনাবলী অর্জন করতে হবে

আপডেটঃ 3:30 pm | November 27, 2017

মোশাররফ হোসেন খসরু॥ময়মনসিংহ-৩ গৌরীপুর আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি বলেছেন দক্ষতা ও সততার কোন বিকল্প নেই । রাজনৈতিক নেতা এবং প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেশপ্রমে উদ্বুদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। তবেই দুর্নীতি মুক্ত জনবান্ধব রাষ্ট্র আরো এগিয়ে যাবে। দক্ষ প্রসাশক ও সৎ ব্যক্তি হিসাবে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সারা বিশ্বে প্রসংসিত হয়েছেন। সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে হলে আগে সততার মাধ্যমে দেশকে উন্নত করার মানবিক গুনাবলী অর্জন করতে হবে।তিনি গতকাল সোমবার সকালে সুশাসনের জন্য প্রচারভিযান (সুপ্র) ময়মনসিংহ জেলা কমিটির আয়োজনে ময়মনসিংহ পৌরসভা কনফারেন্স রুমে বিদ্যমান কর ও মুসক বিষয়ক ময়মনসিংহ বিভাগীয় সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলি বলেন । সুপ্র নেতা আহমেদ স্বপন মাহমুদের সভাপতিত্বে সংলাপে কার্যপত্র উপস্থাপন করেন কবি স্বাধীন চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহের বিভাগীয় কর কমিশনার জি.এম আবুল কালাম কায়কোবাদ, ময়মনসিংহের ডেপুটি কমিশনার কাস্টমস্ ও ভ্যাট মোঃ সোহেল রানা সাজিন। অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন- বিশিষ্ট চক্ষু চিকিৎসক ডাঃ হরিশংকর দাস, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক পরিচালক র.ক.ম নাজিম উদ দৌলা, নাট্যজন ব্যক্তিত্ব শাহাদত হোসেন খান হীলু, সংস্কৃতিক সংগঠক শাহ সাইফুল আলম পান্নু, ড. মো সিরাজুল ইসলাম, ময়মনসিংহ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, মটর ব্যবসায়ী মোঃ আনিসুর রহমান, রোটার‌্যাক্টের ডেপুটি গভর্নর এ.এফ.এম এনামুল হক মামুন, নারী উদ্যোক্তা সৈয়দা সেলিমা আজাদ, সানজিদা ইয়াসমিন রিপা প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সজল কোরায়শী।বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ময়মনসিংহের বিভাগীয় কর কমিশনার জি.এম আবুল কালাম কায়কোবাদ বলেন- কর ব্যবস্থার আনেক আধুনিকীকরণ হয়েছে। স্বচ্ছতা বেড়েছে। কর নিয়ে জনভীতি কমেছে।জনগণের দোরগোড়ায় কর সেবা পৌঁছে যাচ্ছে । জনগণের মধ্যে কর সচেতনতা ক্যাম্পেইন জোরদার হয়েছে। সরকারের কর সংগ্রহ ও কর আদায় অনেক বেড়েছে। জনগণের সচেতনতায় এবং সহযোগিতায় কর বিভাগ তার লক্ষ্য অর্জনে সাফল্য অর্জন করবে।
ময়মনসিংহের ডেপুটি কমিশনার কাস্টমস্ ও ভ্যাট মোঃ সোহেল রানা সাজিন বলেন- ‘ ভ্যাট দিচ্ছে জনগণ, দেশের হচ্ছে উন্নয়ন ’- এটি এখন জনপ্রিয় শ্লোগান । কাস্টমস, ভ্যাট, ইনকাম ট্যাক্স- এই তিনটি অভ্যন্তরীণ রাজস্ব সংগ্রহের মুখ্য মাধ্যম। সরকারের ভ্যাট সংগ্রহ পদ্ধতির ডিজিটালাইজেশন হয়েছে। সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে কাস্টমস্ ও ভ্যাট বিভাগ দায়িত্বশীলতার সাথে কাজ করে চলছে। আমরা দায়বদ্ধ জনসাধারণের কাছে।
সংলাপে বক্তারা বলেন- বাংলাদেশের কর ব্যবস্থা এখনো জনবান্ধব হয়ে উঠেনি। এখনো দুর্নীতি বিদ্যমান। মানুষের মনে ঐতিহাসিক কর ভীতি কাজ করে । তাই কর ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে এবং দরিদ্র বান্ধব কর নীতি প্রণয়নের আহবান জানান।
সভাপতির বক্ত্যবে সুপ্র নেতা আহমেদ স্বপন মাহমুদ বলেন দুর্নিতির করালগ্রাস থেকে আমাদের বেড়িয়ে আসতে হবে তবেই সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে।