| |

Ad

সরিষাবাড়ীতে লম্পট যুবকের বিরুদ্ধে শিশু বলাৎকারের অভিযোগ

আপডেটঃ 4:00 pm | August 03, 2019

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধিঃ-জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে শিশু বলাৎকারের অভিযোগ উঠেছে। পৌরসভার কামরাবাদ বেপারী পাড়া এলাকায় গত ৩১ জুলাই দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে। বলাৎকারের শিকার শিশুটি ১লা আগষ্ট জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানাগেছে। লম্পট যুবক গা ঢাকা দিয়েছে।
স্থানীয় ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী পৌরসভার কামরাবাদ বেপারী পাড়া গ্রামের জবান আলীর পুত্র নাছির উদ্দিনের বাড়ীতে একই গ্রামের পাশের বাড়ীর আব্দুল খালেক এর পুত্র বিপ্লব (৮) ৩১ শে জুলাই দুপুরে টিভি দেখতে যায়। পরিবারের সদস্যরা না থাকার সুযোগ নিয়ে নাছির ঘরে বিপ্লব (৮) কে একা পেয়ে জোর পূর্বক বলাৎকার করে।

শিশুটি কান্নাকাটি করে তার বাড়ীতে গিয়ে পিতা আব্দুল খালেক ও মাতা বেমলা বেগমকে বিষয়টি জানায়। তারা শিশুটির মলদ্বারে ও পরনে থাকা প্যান্টে লেগে থাকা রক্ত দেখতে পান। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে স্থানীয়ভাবে মিমাংসার জন্য গত বৃহস্পতিবার রাতে কতিপয় মাতব্বর উভয় পক্ষকে সমঝোতার জন্য বৈঠকের ব্যবস্থা করেন। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অভিযুক্ত যুবক নাছির উদ্দিন বলাৎকারের শিকার শিশুর পিতা-আব্দুল খালেক এবং তার স্ত্রী বেমলা বেগমকে অভিযোগ করায় মারধর করে। শিশুর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গত ১লা আগষ্ট তাকে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের নিয়ে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়।

শিশুটির অবস্থা বেগতি দেখে সরিষাবাড়ী হাসপাতালের কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার লুৎফর রহমান উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরন করেন। শিশুটি জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে আব্দুল খালেক নিশ্চিত করেন। এ নিয়ে এলাকায় চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। সচেতন এলাকাবাসীর মাঝে বইছে সমালোচনার ঝড়।
এ ব্যাপারে শিশুর পিতা আব্দুল খালেক বলেন, আমার শিশু ছেলেকে বলৎকার করেছে লম্পট নাছির। তিনি আরোও বলেন, আমাকে ও আমার স্ত্রী বেমলাকেও মারপিট করেছে। আমি এর বিচার চাই। নাছির উদ্দিনের বাড়ীতে বিষয়টি সর্ম্পকে জানতে গেলে তার পরিবারের কাউকে না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
জানতে চাইলে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ মাজেদুর রহমান বলেন, শিশু বলৎকার ঘটনায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। আভিযোগ পেলে দোষীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে