| |

Ad

চাঁদে সাঈদীর ছবি দেখা আর পদ্মা সেতুতে মাথা লাগা একই সূত্রে গাথা- অপু উকিল

আপডেটঃ 1:51 pm | July 31, 2019

সাইফুল আলম:- বাংলাদেশ যুব মহিলালীগের সাধারন সম্পাদক সংরক্ষিত আসনের সাবেক এম.পি অধ্যাপক অপু উকিল বলেছেন, যারা নির্বাচনে ভোট কেন্দ্র আগুন দিয়ে পুরে ফেলার চেষ্টা করে, যারা প্রিজাইডিং অফিসার সহ নির্বাচনে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ ও আনসারদেরকে মেরে ফেলার চেষ্টা করে তারা নিশ্চয়ই রাষ্ট্র ও সমাজের জন্য অভিশাপ। তারা সমাজ ও রাষ্ট্রের কলঙ্ক।
তিনি বলেন, চিরাং ইউনিয়নের বাট্টা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গত নির্বাচনের আগের নির্বাচনে এমন ঘটনাই ঘটেছে। এছাড়া ২০০১ সালে নির্বাচনের পর যারাই আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী এবং নৌকায় ভোট দিয়েছে, তাদের ওপর হামলা এবং তাদের বাড়িঘর ভাংছুড় ও ব্যাপক ভাবে লুটপাট করেছে।
অধ্যাপক অপু উকিল বলেন, আওয়ামীলীগ এই প্রতিহিংসার রাজনীতি করেনা বলেই এখনও চিরাং ইউনিয়নের ব্যবসা বানিজ্য হাটবাজার ও ঠিকাদারীর ক্ষেত্রে বি.এন.পি জামায়াতের লোকেরাই এগিয়ে রয়েছে। অপু উকিল বলেন, যারা মুক্তিযুদ্ধে স্বপক্ষের বি.এন.পির সমর্থক তারা লজ্জায় ঘৃনায় দল ছেড়ে নিরপেক্ষ অবস্থানে চলে যাচ্ছে। আর যারা স্বাধীনতার বিরোধী অর্থাৎ পাকিস্তান পন্থি এবং মুক্তিযুদ্ধ চায়নি তারাই পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা লাগে এবং ছেলে ধরা আতঙ্ক ও গণপিঠুনি দিয়ে নির্মম ভাবে মানুষ হত্যা করে সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে।

অপু উকিল বলেন, বি.এন.পির যারা ভাল মানুষ তারা নিরাপদেই থাকবেন। কিন্তু যারা এতদিন অত্যাচার নির্যাতন করেছেন, এখনও দেশের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র করছে তাদেরকে চিহ্নিত করুন। এই চিরাং ইউনিয়ন হবে সন্ত্রাস, বি.এন.পি ও জামায়াত মুক্ত।
এখানে আওয়ামীলীগের কোন নেতাকর্মী বলবেন, চিরাং ইউনিয়ন বি.এন.পির ঘাটি এ কথা আর আমরা শুনতে চাইনা। আপনার আমার এম.পি অসীম কুমার উকিল কোন সন্ত্রাসকে আশ্রয় প্রশ্রয় দেননা, ভয়ও পাননা।

সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে মাদকের বিরুদ্ধে তিনি হুশিয়ারী উচ্চারন করে ঘোষনা দিয়েছেন যারাই মাদক, সন্ত্রাস ও দূর্নীতির সঙ্গে জড়িত তাদের সঙ্গে আমার বা আওয়ামীলীগের কোন সম্পর্ক থাকবে না। বিরচিত মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মিয়ার সভাপতিত্বে চিরাং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল বাশার আজাদের মৃত্যুতে সভাপতি নির্বাচন উপলক্ষে আয়োজিত সম্মেলনে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

চিরাং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এনামুল কবির খানের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নূরুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর চৌধুরী, পৌর মেয়র মোঃ আসাদুল হক ভূঞা, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি কামরুল হাসান ভূঞাঁ।পরে গোপন ব্যালটের মাধ্যমে সামছু মহাজন সভাপতি পদে বিজয়ী হন।