| |

Ad

সড়ক দুর্ঘটনায় হবু আফ্রিকান নভোচারী মাসেকোর মৃত্যু

আপডেটঃ 11:55 am | July 08, 2019

এনএনবি : স্বপ্ন বাস্তবায়িত হওয়ার আগেই সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলো প্রথম কৃষ্ণ আফ্রিকান হিসেবে মহাশূন্যে যাওয়ার সুযোগ জয় করা দক্ষিণ আফ্রিকার নাগরিক মানডলা মাসেকোর।
শনিবার এক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ৩০ বছর বয়সী মাসেকোর মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবারের দেওয়া বিবৃতির বরাতে জানিয়েছে বিবিসি।
২০১৩ সালে ১০ লাখ আগ্রহীকে পেছনে ফেলে যুক্তরাষ্ট্রের একটি মহাকাশ একাডেমির ২৩টি স্থানের একটি জয় করেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিমান বাহিনীর এ সদস্য।
নিজেকে প্রিটোরিয়ার শহুরে বালক বলে বর্ণনা করা মাসেকো ‘আফ্রোনাট’ এবং ‘স্পেসবয়’ নামেও পরিচিত ছিলেন।
এক ঘণ্টার একটি উপ-কক্ষীয় ফ্লাইটের পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টারে এক সপ্তাহ কাটিয়েছিলেন তিনি। ২০১৫ সালে ওই ফ্লাইটটির ওড়ার কথা ছিল।
মাসেকো জানিয়েছিলেন, তিনি এমন কিছু করতে চান যা আফ্রিকার তরুণদের উদ্দীপিত করবে ও অনুপ্রেরণা যোগাবে আর প্রমাণ করবে তারা যে কোনো কিছু অর্জন করতে পারবে তাদের ব্যাকগ্রাউন্ড যাই হোক না কেন।
মহাশূন্য থেকে আফ্রিকার তরুণদের উদ্দেশ্যে কিছু বলার পরিকল্পনা করেছেন বলে বিবিসিকে জানিয়েছিলেন তিনি।
বলেছিলেন, “আমি এমন একটি লাইন বলতে চাই যা বছরের পর বছর ধরে ব্যবহার করা হবে, নিল আর্মস্ট্রং যেমন করেছিলেন।”
মার্কিন নভোচারী আর্মস্ট্রং ১৯৬৯ সালে প্রথম মানুষ হিসেবে চাঁদের মাটিতে পা রেখেছিলেন। চাঁদের মাটিতে পা রাখার মুহূর্তে তিনি বলেছিলেন, “একজন মানুষের ছোট একটি পদক্ষেপ, মানবজাতির জন্য বড় একটি অগ্রগতি।”
আর্মস্ট্রং ২০১২ সালে ৮২ বছর বয়সে মারা যান।