| |

Ad

মদনে বুদ্ধি প্রতবিন্ধী কশিোরি অন্ত:সত্ত্বা থানায় মামলা

আপডেটঃ 10:31 am | July 05, 2019

নত্রেকোনার মদনে কসাই আন্জু ময়িার লালসার স্বীকার বুদ্ধি প্রতবিন্ধী (১৩) অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় ভকিটমিরে মা বাদী হয়ে র্ধষকরে বরিুদ্ধে বৃহস্পতবিার থানায় একটি র্ধষণ মামলা দায়রে করছেনে। পৌরসভার ৮ নং ওর্য়াডে জাহাঙ্গীরপুর দওেয়ান পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘট।ে
পুলশি র্ধষতিাকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য বৃহস্পতবিার (৪ জুলাই) নত্রেকোনা আধুনকি সদর হাসপাতালে প্ররেণ কর।ে
পারবিারকি ও থানা সূত্রে জানা যায়, মদন পৌরসভার ৮ নং ওর্য়াডরে ভকিটমিরে পাশরে বাড়রি রাশদি আলীর ছলেে দুই স্ত্রী ও ৪ সন্তানরে জনক আন্জু কসাই (৫০) বুদ্ধি প্রতবিন্ধী শশিুটি টলেভিশিন দখেে রাতে বাড়ি ফরোর সময় তার নজি ঘরে নয়িে জোর র্পূবক র্ধষণ কর।ে এ ঘটনা কাউকে না বলতে কশিোরীর পরবিারকে হত্যার হুমকি দয়ে। এর পর আরো দু-তনি দনি একই কায়দায় তাকে র্ধষণ কর।ে এক র্পযায়ে কশিোরী অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তার চাচীর কাছে ঘটনা খোলে বল।ে পরে তাকে ডাক্তাররে কাছে নয়িে গলেে ডাক্তার তাকে ৪ মাসরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ছেে বলে জানান।
পরবিাররে লোকজন স্থানীয় পৌর কাউন্সলির মাসুদ রানাকে এ বষিয়টি জানালে তনিি দুই জনকে একত্রে করে রহস্য উদঘাটনরে চষ্টো চালায়। কন্তিু র্ধষক তা অস্বীকার করায় ঘটনাটি জঠলিতার সৃষ্টি হয়। তনিি থানায় অভযিোগ করতে র্ধষতিার পরবিারকে বলনে। এরই প্রক্ষেতিে র্ধষতিার মা হুসনা আক্তার তার ময়েকেে নয়িে মদন থানায় যান এবং র্ধষক আন্জু কসাইকে আসামি করে একটি র্ধষণ মামলা দায়রে করনে।
ভকিটমিরে মা হোসনা আক্তার জানান, আমার ময়েে কছিু দনি ধরে মাঝে মধ্যে বমি করছে দখেে ডাক্তাররে কাছে নয়িে যাই। ডাক্তার তাকে ৪ মাসরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ছেে বলে জানান।
বষিয়টি আমি কমশিনার মাসুদ রানাকে জানালে তনিি মামলা করতে বলনে। আমি আজ বৃহস্পতবিার থানায় মামলা দায়রে করছে।ি
অভযিুক্ত কসাইয়রে প্রথম স্ত্রী র্ঝনা আক্তার জানান, আমার স্বামী যদি এমন কাজ করে তাকে তদন্ত সাপক্ষেে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দয়ো হউক।
কমশিনার মাসুদ রানা জানান, এ সংবাদ শোনে আমি ভকিটমি ও র্ধষক আন্জু ময়িাকে একত্রে নয়িে জজ্ঞিাসা করলে র্ধষক তা অস্বীকার কর।ে পরে থানায় মামলা করার জন্য বলছে।ি
ওসি মোঃ রমজিুল হক জানান,এ ব্যাপারে বৃহস্পতবিার র্ধষক আন্জু ময়িাকে আসামি করে থানায় একটি র্ধষণ মামলা হয়ছে।ে ভকিটমিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য নত্রেকোনা আধুনকি সদর হাসপাতালে প্ররেণ করা হয়ছে