| |

Ad

বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যার সন্দেহভাজন আসামীকে বাবুগঞ্জের রহমতপুর কৃষি ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউটের ছাত্রাবাস থেকে আটক

আপডেটঃ 2:28 pm | July 02, 2019

বাবুগঞ্জে পুলিশের পরিচয় দিয়ে কৃষি ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউটের ছাত্র মাহথির মুহাম্মাদ বিন ফরিদ(১৭)কে আইনশৃঙ্খলা বাহীনির পরিচয়ে ধরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে ১লা জুলাই রাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার রহমতপুর কৃষি ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউটের ক্যাস্পাসের ছাত্র হোস্টেলে। কলেজ সূত্রে ও নাইট র্গাড নুরুল ইসলাম খন্দকার জানায় ১ লা জুলাই গভীর রাতে সাদা পোষাকধারী ৩/৪জন লোক কলেজ গেটে এসে পুলিশের পরিচয় দিয়ে গেট খুলতে বাধ্য করা হয়েছে। পরে তারা ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মাহতি মুহাম্মাদ বিন ফরিদকে খুঁজতে হোস্টেলে প্রবেশ করে মাহথিকে ধরে নিয়ে যায়। এ সময় নাইট গার্ড ও হোস্টেলে থাকা ছাত্ররা পুলিশের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তারা জানান বরগুনা শহরে দিবালকে রিফাত শরীফ হত্যার সাথে মাহতির জড়িত আছে। সোমবার কলেজ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি মাহথির মুহম্মাদ বিন ফরিদ এর পরিবারকে জানান। সংবাদ পেয়ে কলেজে ছুটে আসেন ছাত্র মাহতির পরিবারের সদস্যরা। এ সময় কলেজ কর্তৃপক্ষ তাদেরকে কোন জবাব দিতে না পারায় কলেজ ছাত্র মাহতির পিতা মোঃ ফরিদ উদ্দিন সোমবার রাতে এয়ারর্পোট থানায় একটি সাধারন ডায়রী করেন যার নং-৪২। এ ব্যাপারে কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম মুহাম্মাদ ইদ্রিস ঘটনার রাতে পুলিশ পরিচয় দিয়ে হোস্টেল থেকে দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মাহতিকে ধরে নিয়ে যাওয়ার সত্যতা স্বীকার করেছে। কিন্তু গভীর রাতে ওই সাদা পোষাকধারী পুলিশরা তাকে অবহিত না করে নাইট গার্ডকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে গেট খুলতে বাধ্য করা হয়েছে এবং হোস্টেল সুপারকে অবহিত না করে কলেজ ছাত্র মাহথিরকে ধরে নিয়ে গেছে। তিনি আরো বলেন বরগুনা শহরে প্রকাশ্যে দিবালকে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফ হত্যার ঘটনার সাথে মাহতির জড়িত আছে বলে নাইট গার্ডে কাছে তারা বলেছেন। ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য তিনি পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও এয়ারর্পোট থানার ওসিকে অবহিত করেছেন বলে জানান তিনি। মাহতি মুহাম্মাদ বিন ফরিদ গৌরনদী উপজেলার আশুকাঠী গ্রামের মোঃ ফরিদ উদ্দিনের পুত্র। মোঃ ফরিদ উদ্দিন বড়গুনা কৃষি অধিদফতরের উপ- পরিচালক মোঃ মতিয়ার রহমানের গাড়ী চালক বলে জানা গেছে। মাহথির মুহাম্মাদ বিন ফরিদ পিতার সাথে বরগুনা শহরের জিলা স্কুলে লেখাপড়া করেছে এবং২০১৮ সালে বড়গুনার জিলা স্কুল থেকে এসএসসি পাশ করেছেন বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে এয়ারর্পোট থানার ওসি মাহবুব আলম বলেন কলেজ ছাত্র মাহথি মুহাম্মাদ বিন ফরিদকে সাদা পোষাকধারীরা ধরে নেয়ার ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে সাধারণ ডায়রী করেছেন।