| |

Ad

ব্রাজিলের সিলভা মেসিকে সর্বকালের সেরা বললেন

আপডেটঃ 1:23 pm | June 30, 2019


এফএনএস স্পোর্টস: লিওনেল মেসির প্রতি তাঁর মুগ্ধতা নতুন কিছু নয়। আরও একবার সুযোগ পেতেই সেই মুগ্ধতার কথা জানিয়ে দিলেন থিয়াগো সিলভা। পেলে, গারিঞ্চা থেকে শুরু করে রোনালদোÑতাঁর নিজের দেশে কত কত কিংবদন্তি। তবে সিলভার চোখে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের নাম মেসি।
ব্রাজিলের এই সেন্টার ডিফেন্ডার বলেছেন, ‘আমার কাছে মেসিই ফুটবল ইতিহাসে সর্বকালের সেরা। আমার দেখা সর্বকালের সেরা। তবে পরের ম্যাচটা ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনার। ফলে মেসির প্রতি এই মুগ্ধতা ভবিষ্যতের জন্য তুলে রাখতে হবে।’
সিলভা মেসিকে আগেও সর্বকালের সেরা বলেছেন। পিএসজির অধিনায়ক হিসেবে বার্সেলোনার মুখোমুখি হওয়ার অভিজ্ঞতা তাঁর জন্য নতুন নয়। এর আগে এসি মিলানের হয়ে খেলার সময়ও মেসির মুখোমুখি হয়েছেন। এবার জাতীয় দলের হয়ে মেসির মুখোমুখি হচ্ছেন। অনেক দিন পর ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা কোনো প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে খেলছে। সর্বশেষ মুখোমুখি হয়েছিল ২০০৭ কোপা আমেরিকার ফাইনালে। এবার দুই দলের দেখা হয়ে যাচ্ছে সেমিফাইনালে। ৩ জুলাই বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৬টায় মুখোমুখি হবে এই দুই দল।
এবারের কোপায় মেসি একেবারেই জঘন্য খেলছেন। মাঠে নীরব দর্শকের ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে তাঁকে। তবে সিলভা মনে করেন, ব্রাজিলের তাতে নির্ভার থাকার সুযোগ নেই। বরং মেসির এক মুহূর্তের জাদুও যে সবাইকে বিবশ করে দিতে পারে, সেটাই মনে করিয়ে দিলেন, ‘মেসিকে নিয়ে যতই গবেষণা করুন না কেন, আপনার বোঝার সাধ্য নেই ও কী মানের কিংবা ও কী পার্থক্য গড়ে দিতে পারে। ম্যাচে হঠাৎ করেই ও এমন কিছু করে ফেলবে, আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না। এটাই বাকিদের সঙ্গে ওর পার্থক্য। সেন্টার-ব্যাক হিসেবে তাই আমাকে সম্ভাব্য সব রকম প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে।’
কী ধরনের প্রস্তুতি নিতে হবে, সেটিও বললেন সিলভা, ‘আমরা সবাই জানি ও বাঁ পায়ে খেলে। কিন্তু কখনো কখনো ও কিন্তু ডান পায়েও খেলে ফেলে। ফলে আমাদের মনোযোগ ধরে রাখতে হবে সব সময়, ওর পায়ে বল থাকলেও রাখতে হবে, না থাকলেও রাখতে হবে। কখনো কখনো ওকে ¯্রফে হাঁটার গতিতে খেলতে দেখা যাবে, কিন্তু ও পাল্টা আক্রমণ তৈরি করতে সব সময়ই কিন্তু সুযোগের অপেক্ষায় থাকে। আসলে আবার ওর মুখোমুখি হতে পারাটাই সৌভাগ্যের। আমরা চেষ্টা করব ওকে নিষ্ক্রিয় করে রাখতে।’
মেসি অবশ্য নিষ্ক্রিয় হয়ে আছেন এমনিতেই। কোপা একমাত্র গোলটি করেছেন পেনাল্টি থেকে। এ ছাড়া প্রায় দর্শকের ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে তাঁকে। মাঝখানে ব্রাজিলের মাঠ নিয়েও অভিযোগ করলেন। তবে সত্যিটাও স্বীকার করে নিয়েছেন, ‘সত্যিটা হলো আমি আমার সেরাটা কোপা দিতে পারছি না। কেউ কোপায় আমাদের সহজে ছাড় দেবে না। কিন্তু খেলাটাও খুব কঠিন হয়ে পড়েছে মাঠের কারণে। মাঠের অবস্থা ভয়াবহ। বল তো খরগোশের মতো লাফাচ্ছে, যেকোনো মুহূর্তে যেকোনো জায়গায় বল চলে যেতে পারে। এই অবস্থায় ড্রিবল করা যায় না।’