| |

Ad

দোষ গোপালের, বিয়ে ভাঙে নববধুর

আপডেটঃ 12:31 pm | June 30, 2019

রৌমার প্রতিনিধি॥ গোপাল নামের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীর কারণে বিয়ে ভাঙার উপক্রম হয়েছে নববধুর। তিনি স্বর্ণের বালার বদলে ইমিটেশন দেয়ায় এঘটনা ঘটে। অবশেষে থানা পুলিশান্তে টাকা ফেরত দিতে বাধ্য হন গোপাল। কিন্তু ওই নববধুর সংসারে এখনও বিতর্ক কাটেনি। ২৯জুন (শনিবার) রৌমারী বাজারের স্বর্ণপট্টিতে এ ঘটনা ঘটে ।
রৌমারী উপজেলার আমবাড়ি গ্রামের চানবর আলী তার একমাত্র মেয়েকে বিয়ে দেন বড়াইকান্দি এলাকায়। গরীব চানবর তার মেয়ের বিয়েতে হাতের একজোড়া বালা দেয়ার অঙ্গীকার করেন। কথা অনুযায়ী রৌমারী বাজারের আকাশ জুয়েলার্স-এর মালিক সাগর সাহার নিকট বালা তৈরীর অর্ডার দেন। সাড়ে ১০ হাজার টাকা চুক্তিতে অগ্রিম ৫ হাজার ও বালা নেয়ার সময় বাকি টাকা দেয়ার কথা হয়। গত সোমবার ছিল বালা নেয়ার দিন

। বিয়ে বাড়ির ব্যস্ততার দরুন চানবর আলী আসতে না পাঠায় তার ভাতিজা মিজবর আলীকে বালা নিতে পাঠান তিনি। মিজবর আলী যথা সময়ে আকাশ জুয়েলার্সে এসে মেমো জমা দেন এবং বালা জোড়া চান। তখন দোকানে ছিলেন সাগর। তিনি বাকি সাড়ে ৫ হাজার টাকা নিয়ে ইমিটেশনের একজোড়া বালা তাকে দেন ।
এদিকে বালা নিয়ে নববধু শশুর বাড়িতে গেলে অনেকেই বুঝতে পারেন এগুলো স্বর্ণের নয়। ফলে এ নিয়ে একদিন পরেই নববধুকে বাবার বাড়ি পাঠানো হয়। পরে বালা জোড়া পরীক্ষার পর জানা যায় সেগুলো ইমিটেশনের। শনিবার স্বর্ণপট্টিতে এ নিয়ে বিশাল হট্টগোল শুরু হলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়ার পর টাকা ফেরত দেন গোপাল ।
চানবর আলী সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করে বলেন, এদের জন্য আমার মেয়ের সংসার আজ ভাঙার উপক্রম। থানা পুলিশ করে আমি হয়তো বেঁচে গেলাম কিন্তু আরও অনেকেই এদের প্রতারণার শিকার হয়েছেন। আমার ঘটনার পর সব ঘটনা বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে।
এ বিয়ষে গোপাল সাহার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন পুরো বিষয়টি ভুল বোঝাবুঝি ছিল। এখন সব ঠিক হয়ে গেছে ।