| |

Ad

ইউনিয়ন পরিষদ এর কর্ম দক্ষতা মূল্যায়নের টাকা দিয়ে ফ্যান বিতরণ করলেন চেয়ারম্যান হাবিব

আপডেটঃ 1:56 pm | June 26, 2019

শেরপুর থেকে মনিরুজ্জামান মনির ঃ ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে কামারের চর ইউনিয়ন পরিষদ কর্মদক্ষতা মূল্যায়নের ভিত্তিতে ১ম স্থান অধিকার করেন শেরপুর সদর উপজেলার কামারের চর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ হাবিবুর রহমান। তিনি কর্ম দক্ষতা মূল্যায়নের জন্য ১ লক্ষ ৫৭ হাজার টাকা সরকারের থেকে বরাদ্দ পান। সেই বরাদ্দকৃত টাকা থেকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সিলিং ফ্যান প্রদান করেন। তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে শেরপুর সদর উপজেলার কামারের চর ইউনিয়নের একাডেমিক ভবনে বিভিন্ন মাদ্রাসা ও স্কুলের শিক্ষকদের মাঝে সিলিং ফ্যান বিতরণ করা হয়। এ সময় ৬নং চর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ডুবার চর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ডুবার চর দৃষ্টান্ত একাডেমী, ৭নং চর মদিনাতুল উলুম নূরানী মাদরাসা। তার বরাদ্দ অর্থ থেকে সম্পূর্ণ টাকা দিয়ে ৩৮টি সিলিং ফ্যান ক্রয় করেন। ফ্যান বিতরণ কালে ইউপি সচিব হযরত আলী, প্যানেল চেয়ারম্যান মিষ্টি খাতুন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য বেদেনা বেগম,ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম, উদ্যোক্তা লোকমান হোসেন, ফিরুজ মিয়া উপস্থিত ছিলেন। ডুবার চর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহানারা বেগম ইউপি চেয়ারম্যান এর কাছ থেকে সিলিং ফ্যানগুলো গ্রহণ করেন।

ক্যাপশন ঃ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের মাঝে সিলিং ফ্যান তুলে দেন ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ হাবিবুর রহমান।

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে বরাদ্দকৃত নির্মাণাধীন ঘর পরিদর্শন করলেন বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদ হাসান

শেরপুর থেকে মনিরুজ্জামান মনির ঃ ২৫ জুন মঙ্গলবার দুপুরে শেরপুর সদর উপজেলার কামারের চর ইউনিয়নের অতি দরিদ্রদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ তহবিল থেকে বরাদ্দকৃত নির্মাণাধীন ঘর পরিদর্শন করলেন বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদ হাসান। কামারের চর ইউনিয়নে ৫জন অসহায় মানুষকে দেয়া নির্মাণাধীন ঘরগুলো পরিদর্শন করেন। এ সময় জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফিরুজ আল মামুন,সহকারী কমিশনার ভূমি ফারুক আল মাসুদ, ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ হাবিবুর রহমান, জেলা ত্রাণ কর্মকর্তা, সংরক্ষিত ইউপি সদস্য মিষ্টি বেগম,বেদেনা বেগম, মোঃ রফিকুল ইসলাম, ফিরুজ মিয়া। ঐ ইউনিয়নে বরাদ্দকৃত ৫টি প্রকল্পের মধ্যে ২টি প্রকল্প বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদ হাসান সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। প্রথমে তিনি ডুবার চর দক্ষিণপাড়া গুটো মিয়ার বাড়ীতে তাকে দেওয়া বরাদ্দকৃত নির্মাণাধীন ঘর পরিদর্শন করেন। এছাড়াও সন্যাসীর চর গ্রামে অসহায় আন্তাজ আলীর নির্মাণাধীন ঘর পরিদর্শন করেন। বিভাগীয় কমিশনার দুইটি জায়গা পরিদর্শন শেষে ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি আরও বলেন যথপযুক্ত ব্যক্তিকেই ঘরগুলো প্রদান করা হয়েছে।