| |

Ad

ময়মনসিংহ বিভাগের ২৪টি আসনেই মহাজোট প্রার্থীদের নিরংকুশ বিজয় চতুর্থবার প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন শেখ হাসিনা

আপডেটঃ 7:05 am | January 01, 2019

মোশাররফ হোসেন খসরু ॥ ময়মনসিংহ বিভাগের সবকটি আসনে উৎসব মুখর পরিবেশে শান্তির্পূণভাবে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। ৩০ ডিসেম্বর রবিবার সকাল থেকেই শুরু হয় ভোট গ্রহণের কাজ শেষ হয় বিকাল ৪ টায়। ভোটারদের অংশগ্রহণও ছিলো উল্লেখযোগ্য। কেন্দ্রে কেন্দ্রে দেখা গেছে লাইনে দাড়িয়ে ভোট দিচ্ছেন ভোটারা। এ নির্বাচনে বিভাগের ২৪টি আসনেই মহাজোটের প্রার্থীদের নিরংকুশ বিজয় হয়েছে।
ময়মনসিংহ জেলার ১১ আসন:ময়মনসিংহ-১ (হালুয়াঘাট-ধোবাউড়া) আসনে জুয়েল আরেং (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৫৮ হাজার ৯২৩ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম আফজাল এইচ খান (বিএনপি) পেয়েছেন ২৮ হাজার ৮৩৮ ভোট। ময়মনসিংহ-২ (ফুলপুর তারাকান্দা) আসনে শরীফ আহমদ(আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৯২ হাজার ৪০ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম শাহ শহীদ সারোয়ার(বিএনপি) পেয়েছেন ৬৭ হাজার ৭১৮ ভোট। ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনে নাজিম উদ্দিন আহমেদ(আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ১ লাখ ৫৯ হাজার ৩০০ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম ইঞ্জিনিয়ার এম ইকবাল হোসাইন(বিএনপি) পেয়েছেন ২৪ হাজার ৯৩১ ভোট। ময়মনসিংহ-৪(সদর) রওশন এরশাদ(জাতীয় পার্টি) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৪৪ হাজার ৭৭৪ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম আবু ওয়াহাব আকন্দ(বিএনপি) পেয়েছেন ১ লাখ ৩ হাজার ৭৫৩ ভোট। ময়মনসিংহ-৫(মুক্তাগাছা) কেএম কালিদ বাবু(আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৩২ হাজার ৫৬৩ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম জাকির হোসেন বাবলু (বিএনপি) পেয়েছেন ২২ হাজার ২০৩ ভোট। ময়মনসিংহ-৬ (ফুলবাড়িয়া) আসনে এ্যাডভোকেট মোসলেম উদ্দিন(আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৪০ হাজার ৫৮৫ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম ইঞ্জিনিয়ার শামছ উদ্দিন আহমেদ (বিএনপি) পেয়েছেন ৩২ হাজার ৩৩২ ভোট। ময়মনসিংহ-৭ (ত্রিশাল) আসনে রুহুল আমিন মাদানী (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৬ হাজার ৯৯৫ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম ডাঃ মাহবুবুর রহমান লিটন (বিএনপি) পেয়েছেন ৩৭ হাজার ১৪৮ ভোট। ময়মনসিংহ-৮ (ঈশ্বরগঞ্জ) আসনে ফখরুল ইমাম (জাতীয় পার্টি) প্রাপ্ত ভোট ১ লাখ ৫৬ হাজার ৭৭৯ পেয়েছেন । তার নিকটতম এএইচএম খালেকুজ্জামান (জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গণফোরাম) পেয়েছেন ৩ লাখ ৩৪ হাজার ৬৩ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন । ময়মনসিংহ-৯(নান্দাইল) আসনে নাজিম আনোয়ারুল আবেদিন খান তুহিন (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ২৭ হাজার ২৭৩ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম খুররম খান চৌধুরী (বিএনপি) পেয়েছেন ২০ হাজার ৮৫৮ ভোট। ময়মনসিংহ-১০ (গফরগাঁও) আসনে গোলন্দাজ বাবেল (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৮১ হাজার ২৩০ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম সৈয়দ মাহমুদ মোর্শেদ (জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এলডিপি) পেয়েছেন ৩ হাজার ১৭৫ ভোট। ময়মনসিংহ-১১(ভালুকা) আসনে কাজিম উদ্দিন ধনু (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ২২ হাজার ২৪৮ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম ফখরুদ্দিন আহমেদ বাচ্চু (বিএনপি) পেয়েছেন ২৬ হাজার ৮৯৬ ভোট।

নেত্রকোণা জেলার ০৫ আসন:নেত্রকোণা-১ আসনে মানু মজুমদার (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৪৯ হাজার ৭৩৮ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম কায়সার কামাল (বিএনপি) পেয়েছেন ১৬ হাজার ৩৩২ ভোট। নেত্রকোণা-২ আসনে আশরাফ আলী খান খসরু (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৮৩ হাজার ৪৯৬ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম ডাঃ আনোয়ারুল হক (বিএনপি) পেয়েছেন ৩০ হাজার ৫৭৩ ভোট। নেত্রকোণা-৩ আসনে অসীম কুমার উকিল (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৬০ হাজার ৫৭ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম রফিকুল ইসলাম হিলালী (বিএনপি) পেয়েছেন ৬ হাজার ৭১৫ ভোট। নেত্রকোণা-৪ আসনে রেবেকা মোমিন (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৪ হাজার ৮০৩ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম তাহমিনা জামান শ্রাবণী (বিএনপি) পেয়েছেন ৩৮ হাজার ১০৫ ভোট। নেত্রকোণা-৫ আসনে ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল (বীর প্রতীক) প্রাপ্ত ভোট ১ লাখ ৬৭ হাজার ৫৬২ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম আবু তাহের তালুকদার (বিএনপি) পেয়েছেন ১৫ হাজার ৫৮ ভোট।

শেরপুর জেলার ০৩ আসন:শেরপুর-১(সদর) আসনে ২লাখ ৮৭হাজার ৬৫০ ভোট পেয়ে মহাজোট সমর্থীত আওয়ামীলীগ প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিউর রহমান আতিক ৫ম বারেরমত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। ২৭ হাজার ৫২৭ভোট পেয়ে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি¦ ঐক্যফ্রন্ট সমর্থীত বিএনপি প্রার্থী ডাঃ সানসিলা জেবরিন প্রিয়াংকা। শেরপুর-২(নারিতাবাড়ী-নকলা) আসনে ২লাখ ৯৩ হাজার ৬শ ভোট পেয়ে মহাজোট সমর্থীত আওয়ামীলীগ প্রার্থী কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী ৪বারেরমত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ঐক্যফ্রন্ট সমর্থীত বিএনপি প্রার্থী ফাহিম চৌধুরী পেয়েছেন ৭হাজার ভোট। শেরপুর-৩(ঝিনাইগাতী-শ্রীবরদী) আসনে ২লাখ ৫১হাজার ৯৩৬ ভোট পেয়ে ৩য় বারেরমত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন মহাজোট সমর্থীত আওয়ামীলীগ প্রার্থী একেএম ফজলুল হক চান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ঐক্যফ্রন্ট সমর্থীত বিএনপি প্রার্থী ভাতিজা মাহমুদুল হক রুবেল পেয়েছেন ১২হাজার ৪৯১ ভোট।

জামালপুর জেলার ০৫ আসন:জামালপুর-১ আসনে আবুল কালাম আজাদ (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ৭৪ হাজার ৬০৫ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম আব্দুল মজিদ (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের) পেয়েছেন ৫ হাজার ২২৪ ভোট। জামালপুর-২ আসনে ফরিদুল হক খান দুলাল (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ১ লাখ ৮০ হাজার ৪১৮ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম সুলতান মাহমুদ বাবু (বিএনপি) পেয়েছেন ১৬ হাজার ৭২১ ভোট। জামালপুর -৩ আসনে মির্জা আজম (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ৩ লাখ ৮৫ হাজার ১১৩ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল (বিএনপি) পেয়েছেন ৪ হাজার ৬৭৭ ভোট। জামালপুর -৪ আসনে মুরাদ হাসান (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ২ লাখ ১৭ হাজার ১৯৮ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম মোখলেছুর রহমান (জাতীয় পার্টি) পেয়েছেন ১ হাজার ৫৯৩ ভোট। জামালপুর-৫ আসনে ইঞ্জিনিয়ার মোজাফ্ফর হোসেন (আওয়ামীলীগ) প্রাপ্ত ভোট ৩ লাখ ৭৩ হাজার ৯০৯ পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম আবু তাহের তালুকদার (বিএনপি) পেয়েছেন ১৫ হাজার ৫৮ ভোট।