| |

Ad

ময়মনসিংহ ল্যাবরেটরি উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে ধর্মমন্ত্রী সুস্থ্য দেহের অধিকারী হতে হলে অবশ্যই খেলাধূলায় মনোযোগী হতে হবে

আপডেটঃ ৫:৪১ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৮

রজত কান্তি দেবনাথ : গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বলেছেন শিক্ষার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের খেলাধূলায় পরাদর্শী হতে হবে।খেলাধূলায় দেহ ও মনের বিকাশ ঘটে।সুস্থ্য দেহের অধিকারী হতে হলে অবশ্যই খেলাধূলায় মনোযোগী হতে হবে। তিনি গতকাল ১৭ ফেব্রæয়ারি ২০১৮ খ্রি. ময়মনসিংহ ল্যাবরেটরি উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্ত্যব্যে উপরোক্ত কথাগুলি বলেন। বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে দিনব্যাপী আড়ম্বর অনুষ্ঠানটি ময়মনসিংহ ল্যাবরেটরি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা এম.এ কাশেম এর সার্বিক তত্ত¡াবধানে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ এর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন। বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও বিদ্যালয়ের নতুন একাডেমিক ভবন এর শুভ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি ধর্মমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক আনোয়ারুল ইসলাম এর পরিচালনায় ক্রীড়া অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম, সহ: শিক্ষক এ.কে.এম.ফরিদ উদ্দিন, সুনীল চন্দ্র সাহা, বলাই চন্দ্র পন্ডিত, শংকর চন্দ্র সরকার, মো: আবুল কালাম আজাদ, এ.কে.এম. খায়রুজ্জামান, মাহমুদা নাসরীন, জয়নুল আবেদীন, তানজিনা আক্তার, জিন্নাতুন নাহার, শিউলি আক্তার, আশরাফুল হক, আজিজুল হক, জুলফিকার আলী চৌধুরী, হাসিনা খানম, নিয়তি রাণী মন্ডল, হেলেনা খাতুন, হেলাল উদ্দিন ও অন্যান্য সহকমীবৃন্দ। সুস্থ শরীর ও সুস্থ মননের বিকাশে আয়োজিত প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। তন্মধ্যে ব্যাঙ দৌড় প্রতিযোগিতা, বিস্কুট দৌড়, ব্যাঙ দৌড়, মার্বেল দৌড়, বস্তা দৌড়, দড়িলাফ, দীর্ঘ লাফ, গোলক নিক্ষেপ, মোরগ লড়াই, ভারসাম্য দৌড়, অন্ধ পাখির চক্ষু দান, চোখ বেঁধে পাতিল ভাঙ্গা, মায়েদের বাজনার তালে বল বদল। সবশেষে অনুষ্ঠিত হয় আকর্ষণীয় ইভেন্ট যেমন খুশি তেমন সাজো এবং পুরস্কার বিতরণী।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা এম.এ কাশেম মনে করেন, বই পড়া ও জ্ঞান আহরণের বাইরে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অনুসঙ্গ হলো খেলাধূলা। তাই প্রথানুসারে প্রতিবার আন্তরিকরতার সাথে এই আয়োজনটি হয়ে থাকে বিদ্যালয়ের প্রাঙ্গনে। এটি ছিল ময়মনসিংহ ল্যাবরেটরি উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৮তম আয়োজন। ময়মনসিংহ ল্যাবরেটরি উচ্চ বিদ্যালয়ের এ বছরের এস.এস.সি পরীক্ষার্থী সৈয়দ সামী বলেন, “আমার জানামতে বৃহত্তর ময়মনসিংহের মধ্যে একমাত্র আমাদের বিদ্যালয়ে অত্যন্ত জাকজমকপূর্ণভাবে প্রতিবছর বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতাটি হয়ে থাকে। আমি এতে গর্ববোধ করি।” সবশেষে বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী ওবায়দুল হক খান অপুর নির্দেশনায় শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আলিফ হাসান স্বাধীন ছাড়াও অন্যান্যরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন।